শিরোনাম:
ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
Swadeshvumi
বৃহস্পতিবার ● ১৮ এপ্রিল ২০২৪
প্রচ্ছদ » জাতীয় » মুজিব নগর দিবসে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা
প্রচ্ছদ » জাতীয় » মুজিব নগর দিবসে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা
২৩৪ বার পঠিত
বৃহস্পতিবার ● ১৮ এপ্রিল ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মুজিব নগর দিবসে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা

---

 

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদ। গতকাল বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেল ৪টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ৮৭, বশির উদ্দিন রোড়, কলাবাগানে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

 

সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি মোহাম্মদ আলাউদ্দিন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সরদার মাহামুদ হাসান রুবেলের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য কামাল উদ্দিন আহমেদ।

 

কামাল উদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধু পারিষদ একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন৷ এই পরিষদের গঠনতন্ত্র সমুন্নত থাকবে৷ এখানে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার ক্ষমতা কারো নাই৷ আমরা সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী। অগঠনতান্ত্রিক ভাবে গঠিত কোন কমিটিকে আমরা মেনে নিবো না৷

 

তিনি মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে বলেন, এই সংগঠনের কমিটি কীভাবে গঠন করতে হবে গঠনতন্ত্রে তা দেওয়া আছে৷ নতুন কমিটি করতে হলে জেনারেল মিটিং করে তা পাশ করতে হবে৷ তারপর কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন কমিটি তৈরি করতে হবে৷ রাতের আঁধারের কোন কমিটি বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতৃবৃন্দ মেনে নেবে না৷

 

---

 

আলোচনায় প্রধান বক্তা ডা. আবদুল্লাহ মামুন বলেন, যে আম্রকাননে স্বাধীনতা অস্তমিত হয়েছিলো৷ সেখান থেকে স্বাধীনতার বিজয় হয়েছিলো৷ ১০ এপ্রিলের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র অনুসারে ২৬ মার্চ আমাদের স্বাধীনতা দিবস। কারণ ঘোষণাপত্রে লেখা হয়েছে- ‘আমাদের এই স্বাধীনতার ঘোষণা ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ থেকে কার্যকর বলে গণ্য হবে।’ 

 

ঘোষণাপত্রের একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিক হলো বঙ্গবন্ধুর ২৬ মার্চের স্বাধীনতার ঘোষণাকে স্বীকৃতি দেওয়া এবং তাঁকে রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে অভিহিত করে৷ পরিষদের সাংগঠনিক বিষয়ে তিনি বলেন, গঠনতান্ত্রিকভাবে ঢাকায় একটিই কমিটি৷ ক্ষমতার অপব্যবহার করে একে ভাগ করার কোন সুযোগ কাউকে দেওয়া হবে না।

 

মহানগর কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলাউদ্দিন বলেন, আমাদের মিথ্যাচারের মোকাবিলা করতে হবে সত্য দ্বারা। এজন্য মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দকে দায়িত্ব নিতে হবে।

 

---

 

মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহামুদ হাসান রুবেল বলেন, ঐতিহাসিক ১৭ই এপ্রিল রাষ্ট্রের এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের জনগণকে তাদের বীরত্ব, সাহসিকতা ও বিপ্লবী কার্যক্রমের মাধ্যমে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে স্বাধীনতা লাভের লক্ষে অদম্য স্পৃহায় মরণপণ যুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার জন্য আহ্বান জানানো হয়। তিনি জানান, গঠনতান্ত্রিকভাবে ঢাকা মহনগরের নতুন কমিটি গঠনে তাদের কোন আপত্তি নেই। তবে কেন্দ্রীয় নেতৃৃবৃন্দের অনিয়মতান্ত্রিক কোন সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়া হবে না।

 

সভায় আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় কমিটি প্রচার সম্পাদক ডা. শাহেদ ইমরান, ত্রাণ ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক মহিউদ্দিন মাহী, সদস্য মিজান ইবনে হোসেন, নওগাঁ জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম বিজন৷ 

 

আলোচনায় মহানগর কমিটির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন ডা. বেলায়েত হোসেন খান, এম. মনসুর আলী, হারুন উর রশিদ, দেলোয়ার হোসেন, মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, সালাউদ্দিন আল আজাদ, এড শফিকুল ইসলাম স্বপন, ওয়াদুজ্জামান মিন্টু, নির্মল বিশ্বাস, প্রফেসর ডা. বেলায়েত হোসেন খাঁন, এম মনসুর আলী, মো. হারুন উর রশিদ, হাজী মো. দেলোয়ার হোসেন, সালাউদ্দিন সিদ্দিক, সালাউদ্দিন আল আজাদ, কে এম সিদ্দিকুজ্জামান, সঞ্জিব কুমার রায়, মাহতাব আলী রাশেদী, এস. এম. ওয়াহিদুজ্জামান (মিন্টু), নির্মল বিশ্বাস, লায়ন শোয়েব উদ্দিন সোহেল, আফসা আহমেদ সানু, ফেরদৌস বিপ্লব, মোহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম, আবদুল্লাহ আল আমিন রঞ্জন, কৃষিবিদ নাসির উদ্দিন আহম্মেদ, মনিরুল ইসলাম খান, ডা. মো. কামরুল ইসলাম খান (ইমন), নীতিশ সরকার, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আওয়াল হোসেন, শেখ মো. ফারুক শাহ, কাজী সাইফুর রহমান, নাহিদ হোসেন,এ ডি সুজাউদ্দিন, কাজী কামরুজ্জামান, মো. মশিউর রহমান, শওকত আকবর, জসিম উদ্দিন টুটুল, ইমরান খান নাহিদ, সুদেব কুমার দেবু, আফতাফ হোসেন মুন, সৈয়দ জামাল, আফজাল হোসেন, অধ্যাপক অলিউর রহমান, মনির উদ্দিন আহমেদ ভূইয়া, মো. নজরুল ইসলাম প্রমুখ৷

 

 



বিষয়: #



আর্কাইভ