শিরোনাম:
ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
Swadeshvumi
শনিবার ● ৯ ডিসেম্বর ২০২৩
প্রচ্ছদ » জাতীয় » এসপি জামাইকে বদলি করতে সিইসিকে চিঠি মণিরামপুরবাসীর
প্রচ্ছদ » জাতীয় » এসপি জামাইকে বদলি করতে সিইসিকে চিঠি মণিরামপুরবাসীর
১৩১ বার পঠিত
শনিবার ● ৯ ডিসেম্বর ২০২৩
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

এসপি জামাইকে বদলি করতে সিইসিকে চিঠি মণিরামপুরবাসীর

---

নিজস্ব প্রতিবেদক
শ্বশুরবাড়ির এলাকা থেকে যশোরের জামাই ও পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় কুমারকে বদলির জন্য আবেদন করেছে এলাকাবাসী। এসপি প্রলয় কুমারের বিরুদ্ধে নির্বাচনে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে চিঠি দিয়েছেন যশোর মণিরামপুর উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।
শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) সিইসির কাছে পাঠানো চিঠিতে মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্মসাধারণ সম্পাদক জিএম মজিদ, সহ-সভাপতি গৌর কুমার ঘোষ, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. সুরুত ব্যানার্জী সুব্রত ব্যাপার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল আক্তার এলাকাবাসীর পক্ষে সই করেছেন। চিঠির অনুলিপি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিবকেও পাঠিয়েছেন তারা।
চিঠিতে বলা হয়েছে, যশোর জেলার বর্তমান পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় কুমার জোয়াদ্দার প্রায় তিন বছর ধরে কর্মরত আছেন। তিনি নেত্রকোণা জেলার বাসিন্দা হলেও তার শ্বশুর বাড়ি যশোরের মণিরামপুর উপজেলায়। তিনি মণিরামপুরের বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্যের জামাই হিসাবে সু-পরিচিত। বর্তমান শার্শার এমপি আফিল উদ্দীনের সঙ্গেও রয়েছে তার চরম ব্যক্তি সম্পর্ক, যা আসন্ন নির্বাচনকে প্রভাবিত করবে। বর্তমান এমপি এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যের সঙ্গে বর্তমান এসপি প্রলয় কুমার জোয়াদ্দারের গভীর সম্পর্ক থাকার কারণে মণিরামপুরসহ যশোরের ছয়টি আসনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়।

চিঠিতে আরও বলা হয়, ইতোমধ্যে পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়াদ্দারের নির্দেশে মণিরামপুর থানার কর্মরত এসআই ও এএসআইরা প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যের পক্ষ নিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই অবস্থায় আসন্ন নির্বাচনের সময় তিনি যশোরে কর্মরত থাকলে জেলার ছয়টি আসনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ থাকবে না। এ নিয়ে ভোটাররা ভীত ও আতঙ্কিত হয়ে আছে। এছাড়া, সম্প্রতি তিনি পদোন্নতি পেয়ে অতিরিক্ত ডিআইজি হয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী যেকোনো নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারবেন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কেউ পাস করে আসতে পারবেন না। প্রত্যেক প্রার্থীকে একজন করে দলীয় ডামি প্রার্থী রাখতে হবে। সেই লক্ষ্যে সুষ্ঠু ভোটের জন্য মাঠে ভোটার উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হলে এসপি প্রলয় কুমার জোয়াদ্দারকে সরিয়ে নতুন এসপি নিয়োগ দেওয়া অত্যন্ত জরুরি। এটি যশোরের প্রত্যেক মানুষের কামনা।
চিঠিতে আরও বলা হয়, সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে এসপি প্রলয় কুমার জোয়াদ্দারকে বদলি করে অন্য একজন পুলিশ সুপার পদায়নের ব্যবস্থা করলে আমরা সমগ্র যশোর জেলাবাসী কৃতজ্ঞ থাকব। পাশাপাশি সুষ্ঠু ও সুন্দর উৎসবমুখর ভোট উৎসবে সমগ্র যশোর জেলার ছয়টি আসনের মানুষ উপকৃত হবে।



বিষয়: #



আর্কাইভ